News By KalerkOntho on Food Distribution

https://www.kalerkantho.com/online/national/2020/04/05/895060?fbclid=IwAR3LREcS-fdK_342jWjOyr913ZKTSIRquyNn0o3tRZX68jNdB3jXTbJCSOA

এবার ১ হাজার পরিবারের পাশে সাফিয়া ফাউন্ডেশন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৫ এপ্রিল, ২০২০ ১২:৩০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে

করোনা ভাইরাসের কারণে স্থবির হয়ে পড়া শহরে অনেক দিনমজুর বেকার হয়ে পড়েছেন। খাবার নেই। এসময় সাধারণ মানুষের পাশে অনেক সামর্থবান মানুষেরা এসে দাঁড়াচ্ছেন। শোবিজ তারকারাও আসছেন। ছুটে গেলেন ক্লোজ আপ তারকা সালমাও। সম্প্রতি ২০০ পরিবারকে খাদ্য ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য পৌঁছে দিয়েছিলেন সালমার সাফিয়া ফাউন্ডেশন। এবার ১ হাজার পরিবারের কাছে পৌঁছে যাবে খাবার। পাশপাশি শিশুখাদ্যও পৌঁছানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলে রবিবার সকালে কালের কণ্ঠকে জানালেন ক্লোজ আপ তারকা সালমা।

সালমা কালের কণ্ঠকে বলেন, এর আগেরদিন আমরা যখন ত্রাণ পৌঁছে দিতে বের হয়েছিলাম তখন বুঝেছি মানুষের চাহিদা। এবার আমরা ১ হাজার মানুষের কাছে খাবার পৌঁছানোর ব্যবস্থা করেছি। সাফিয়া ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে আমরা ঘোষণা দিয়েছিলাম যে মধ্যবিত্তদের নিকট যারা কাউকে জানাতে পারছেন না তারা যেন আমাদের জানায়। এরকম অনবেকেই আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। আমরা তিন’শ জন এমন পরিবারের তালিকা করেছি। দুই ট্রাক খাবার ইতোমধ্যে প্যাকেট করা হচ্ছে। আজ থেকে এগুলো সরবরাহ শুরু করবো।

জনপ্রিয় এই কণ্ঠশিল্পী বলেন, আমাদের আরো অনেকগুলো পরিকল্পনা রয়েছে। এরমধ্যে একটি হলো শিশুখাদ্য। আমরা চাল-ডাল পৌঁছে দিচ্ছি কিন্তু শিশুরা কী খাবে? আমরা পরবর্তী তালিকা করছি শিশুখাদ্যের। যেসব পরিবারে শিশু আছে সেসব পরিবারে আমরা ওদের জন্য খাদ্য পৌঁছে দেবো। আমাদের এখন ভলান্টিয়ার সংকট পড়েছে। তারপরেও আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

সালমা বলেন, মানুষকে সাহায্য করার জন্যই আমি আর আমার স্বামী সাফিয়া ফাউন্ডেশন গঠন করেছি। আজকে মানুষকে সহায়তা করার ছবি ফেসবুকে দিয়েছি। অনেকেই হয়তো বলবেন মানুষকে দেখানোর জন্য দান করেছি। তাদের উদ্দেশ্যে বলবো, মানুষকে দেখানোর উদ্দেশ্য করে হলেও দান করুন। এমন একশ’ মানুষ যদি দান করে তাহলে কতগুলো পরিবার ভালো থাকবে, একবার ভাবুন।

সালমার ছোট মেয়ের নামেই সাফিয়া ফাউন্ডেশন ফর এডুকেশনাল ডেভেলপমেন্ট’। এই এনজিও’এর চেয়ারম্যান সালমা, মহাসচিব  তার স্বামী। আগামীতে  সারাদেশে এর কাজ ছড়িয়ে দিবে বলে জানান সালমা।  

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *